Sunday, 8 March 2015

শীত থেকে গরমের দিকে

এই যে সময়টা, শীত চলে গেছে অথচ গরম পড়েনি, এটাই তো বসন্ত। ভোরের দিকে শীত শীত, বেলা বাড়লেই তাতানো গরম, সন্ধের দিকে মনোরম, রাতে আবার ঠাণ্ডা, এগুলোই বসন্তের লক্ষন। কিন্তু আমি, শীত চলে গেছে, এটা বুঝি একটু অন্যভাবে। বলছি সেটা কি।

       শীতকালের যেকোন দিন বড়সড় দুটো ভাগে বিভক্ত - সকাল আর রাত। সকাল হয়, নিরবিচ্ছিন্নভাবে সারাদিন রোদেলা থাকে, তারপর ঝুপ করে হঠাৎ সন্ধে নেমে রাত হয়ে যায়। ঘড়ির দিকে না তাকালে 'এখন বারোটা বাজে নিশ্চই' বা 'এবার বিকেল হবে' এটা বলা মুশকিল। গরমকালের চরিত্র একদম অন্য রকম। সব সময় বদলাচ্ছে। অ্যালার্ম দিয়ে ভোররাতে উঠে যদি বসে থাকা যায় তাহলে ঊষা, ভোর, সকাল, বেলা, দুপুর, বিকেল, সন্ধে, রাত্তির সব আলাদা করে বোঝা যায়। ঘড়ি না থাকলেও। দিনের প্রতিটা ভাগের আলোর চরিত্র, হাওয়ার ধরন একদম আলাদা। খালি চোখে, খুব একটা খেয়াল না করেও সেটা বোঝা যায়।

       এবার সে সময় আসছে। শীতকালের নিজস্ব মজা আছে নিশ্চয়ই, কিন্তু গরমের এই বহুমুখী, বর্ণময় ব্যাপার তার মধ্যে নেই। আম, ঠাণ্ডা জলে হুড় হুড় করে চান, বিকেল বেলার দক্ষিণের হাওয়া, কালবৈশাখীর দাপট সব নিয়ে এবার সে হাজির হবে।

       সবই ঠিক আছে, শুধু দুপুরের দিকটায় কারেন্ট চলে গেলেই একটু... হেঁ হেঁ...